শুক্রবার, ২২শে অক্টোবর, ২০২১ ইং, দুপুর ১:৪৮

“শান্তিপ্রিয় ইউনিয়নবাসী এবং তৃণমূল আওয়ামী লীগ’র অকুন্ঠ ভালবাসায় সিক্ত সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সেন্টু”

খালিদ হাসান,নলছিটিঃ
ইতোমধ্যে বইতে শুরু করেছে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের হাওয়া । এরই ধারাবাহিকতায় ঝালকাঠি জেলার নলছিটি উপজেলার ঐতিহ্যবাহী মোল্লারহাট ইউনিয়নেও নির্বাচনী আমেজ সুস্পষ্ট । এক সময়কার শান্তির অভয়ারণ্য খ্যাত মোল্লারহাট ইউনিয়ন বেশ কয়েক বছর যাবৎ অশান্তিতে ষোলকলা পূর্ণ করেছে । প্রকাশ্য দিবালোকে ধর্ষণ ব্যতিত হেন জঘন্য অপরাধ নেই যা এখানে সংগঠিত হয়নি । স্বাভাবিক জীবন ধারণ এখানে দূর্বিষহ হয়ে উঠেছে । সামান্যতম নিরাপত্তার ভরসা পাচ্ছেন না সাধারণ মানুষ । এহেন চরম বিরূপ পরিস্থিতি থেকে মানুষ নিষ্কৃতি চাচ্ছেন । মুক্ত আলো বাতাসের নিশ্চয়তা তাঁদের প্রাণের দাবি । প্রয়োজন শুধু একজন চোকস কান্ডারী ।
ইতিমধ্যে শান্তিপ্রিয় মানুষগুলোর জন্য ত্রাতা হিসেবে মেঘ না চাইতেই বৃষ্টি ন্যায় আবির্ভূত হয়েছেন এক সময়কার তুখোড় ছাত্রলীগ নেতা,বরিশাল জেলা ও ব্রজমোহন কলেজ ছাত্রলীগ’র অত্যন্ত জনপ্রিয় ছাত্রনেতা,ত্যাগী আওয়ামী ও মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সুসন্তান,চমৎকার সংগঠক,আদর্শ শিক্ষক বাবার সুশিক্ষিত সন্তান,উপজেলা আওয়ামী লীগ’র সাবেক শিক্ষা ও সংস্কৃতি বিষয়ক সম্পাদক, বিনম্রতা এবং শান্তি প্রতিষ্ঠা যার মহান ব্রত,গোহাইলবাড়ী জে,এম,মাধ্যমিক বিদ্যালয় ব্যবস্থাপনা কমিটির সফল-স্বার্থক চৌকস সভাপতি, উপজেলা পরিষদের সাবেক সফল চেয়ারম্যান জননেতা অ্যাডভোকেট জি,কে,মোস্তাফিজুর রহমান,শিক্ষক সমিতির সুদীর্ঘ কালের সফল সভাপতি জনাব আলহাজ্ব এবিএম হারুন অর রশিদ,বরিশাল সরকারি কমার্শিয়াল কলেজ ছাত্র সংসদের নির্বাচিত সাবেক জিএস জনাব কেএম মিজানুর রহমানের স্নেহাস্পদ ছোট ভাই “অ্যাডভোকেট কে.এম.মাহাবুবুর রহমান সেন্টু(এম,এ,এল-এল,বি)।” মোল্লারহাট ইউনিয়ন সহ আশ পাশের শত সহস্র মানুষ তাঁর ইতিবাচক সিদ্ধান্তকে আন্তরিকতার সাথে স্বাগত জানিয়েছেন । ভোটের রাজনীতিতে এ পরিবারটিকে নির্বাচকমণ্ডলী কখনোই হতাশ করেননি । পরিবারটির প্রতি মানুষের রয়েছে অগাধ সহমর্মিতা । কেননা বার বার ত্যাগের পরীক্ষায় এরা সফলতার সাথে উত্তীর্ণ হয়েছে । ইউনিয়নের হৃতগৌরব পুনরুদ্ধারে অ্যাডভোকেট কে.এম.মাহাবুবুর রহমান সেন্টুর ন্যূনতম বিকল্প নেই বলে সর্বসাধারণের লৌহ ইস্পাত মতামত ।