শনিবার, ৩১শে অক্টোবর, ২০২০ ইং, রাত ১০:২৭
শিরোনাম :
মুলাদীতে শেখ রাসেল জাতীয় শিশু কিশোর পরিষদ এর নবাগত কমিটির আনন্দ র‌্যালী ও পথসভা অনুষ্ঠিত বাবুগঞ্জ মা ইলিশ রক্ষায় অভিযানে ৮ জেলের কারাদন্ড করোনার দ্বিতীয় থাবা মোকাবিলায় আমরা এখন থেকে প্রস্তুত: প্রধানমন্ত্রী শুক্রবার দেশব্যাপী বিক্ষোভের ডাক দিয়েছে হেফাজতে ইসলাম বিশ্বনবীকে নিয়ে ব্যঙ্গচিত্রের প্রতিবাদে সাতক্ষীরায় প্রতিবাদ বিক্ষোভ সমাবেশ অনুষ্ঠিত শিশু সন্তানের গলায় চাকু ধরে মাকে ধর্ষণ! বরিশালে পরীক্ষার দাবিতে পলিটেকনিক শিক্ষার্থীদের মানববন্ধন ও সমাবেশ অনুষ্ঠিত প্যাকেজ সুবিধা দিতে ব্যাংকগুলোকে আরো আন্তরিক হতে হবে: প্রধানমন্ত্রী সাংবাদিক আরিফ হোসেনের পিতৃবিয়োগে বিজলী বার্তার শোক লাভ ফর ফ্রেন্ডসের উদ্দ্যেগে নলছিটিতে বৃক্ষরোপন কর্মসূচী অনুষ্ঠিত

অসুস্থ নানাকে দেখার পথে তরুণী ধর্ষণের শিকার : গ্রেফতার ২

অনলাইন ডেক্স:

বড়লেখায় অসুস্থ নানাকে দেখতে নানা বাড়ি যাওয়ার পথে এক তরুণী (১৮) ধর্ষণের শিকার হয়েছেন। ঘটনাটি ঘটেছে শুক্রবার সকালে উত্তর শাহবাজপুর ইউনিয়নের আতুয়া এলাকায়। সন্ধ্যায় ধর্ষিতা তরুণীর মামলায় পুলিশ সহযোগী অটোরিকশা চালকসহ ধর্ষককে গ্রেফতার করেছে। এরা হচ্ছে উপজেলার উত্তর শাহবাজপুর ইউপির বাদেপুকুরিয়া গ্রামের মৃত রফিক উদ্দিনের ছেলে বাজার চৌকিদার দেলোয়ার হোসেন (২৫) ও উপজেলার চুকারপুঞ্জি গ্রামের মাসুক মিয়ার ছেলে আলী আহমদ (১৮)। শনিবার দুপুরে পুলিশ তাদেরকে আদালতের মাধ্যমে কারাগারে পাঠিয়েছে।
মামলা সূত্রে জানা গেছে, ওই তরুণী বৃহস্পতিবার খালার বাড়ি বেড়াতে যান। রাতে খবর পান নানা অসুস্থ। অসুস্থ নানাকে দেখতে শুক্রবার সকালে খালার বাড়ি থেকে নানার বাড়ির উদ্দেশে রওয়ানা দেন। শাহবাজপুর বাজারে আসার পর তরুণীর খালাতো ভাই সিএনজি চালক আলী আহমদের সিএনজিতে তুলে দেন। পথে সিএনজি চালক আলী আহমদ শাহবাজপুর বাজারের চৌকিদার দেলোয়ারকে সিএনজিতে উঠান। সিএনজিতেই দেলোয়ার তরুণীকে ধর্ষণের চেষ্টা চালালে তরুণী গাড়ি থেকে নামার চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। সিএনজি চালকের সহযোগিতায় দেলোয়ার জোরপূর্বক আতুয়া এলাকার নির্জন স্থানে নিয়ে তাকে ধর্ষণ করে। একপর্যায়ে স্থানীয় লোকজন আসলে তরুণীকে রেখে ধর্ষক দেলোয়ার ও সহযোগী আলী আহমদ পালিয়ে যায়। নানা বাড়ি না ফেরায় খুঁজতে গিয়ে খালাতো ভাই ও স্থানীয় লোকজন আতুয়া এলাকা থেকে তরুণীকে উদ্ধার করেন। এ ঘটনায় দুপুরে ধর্ষক দেলোয়ার ও সহযোগী আলী আহমদের বিরুদ্ধে ধর্ষিতা তরুণী থানায় মামলা করেন। শাহবাজপুর পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ মোহাম্মদ মোশাররফ হোসেনের নেতৃত্বে পুলিশ পৃথকস্থান থেকে অভিযুক্ত দু’জনকে গ্রেফতার করেছে।

তরুণী ধর্ষণের মামলায় দু’জনকে গ্রেফতারের সত্যতা নিশ্চিত করে বড়লেখা থানার ওসি মো. জাহাঙ্গীর হোসেন সরদার জানান, শনিবার আদালতের মাধ্যমে তাদেরকে কারাগারে এবং ধর্ষিতা তরুণীকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য মৌলভীবাজার সদর হাসপাতালে পাঠিয়েছেন।’