শুক্রবার, ২২শে অক্টোবর, ২০২১ ইং, দুপুর ১২:২০

অগণতান্ত্রিক উপায়ে ক্ষমতায় যাওয়ার পথ খুঁজছে বিএনপি: কাদের

অনলাইন ডেস্ক::

অগণতান্ত্রিক উপায়ে ক্ষমতায় যাওয়ার পথ খুঁজছে বিএনপি এমন অভিযোগ করেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের।

রোববার (১০ অক্টোবর) সকালে নিজ বাসভবনে ব্রিফিংয়ে এ কথা বলেন তিনি।

তিনি আরও বলেন, জনরায়কে অশ্রদ্ধা দেখিয়ে নির্বাচন থেকে দূরে থাকলে অতীতের মতো ভবিষ্যতেও দলটিকে পস্তাতে হবে।

এদিকে, সকালে প্রেসক্লাবে এক আলোচনা সভায় বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকার ছাড়া দেশে কোনো নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে দেওয়া হবে না।

এ সময় নিরপেক্ষ তত্ত্বাবধায়ক সরকার ছাড়া বিএনপি সেই নিবাচনে অংশ নেবে না এবং কোনো দলকেই সেই নির্বাচনে অংশ নিতে দেওয়া হবে না বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন। এ সময় জাতীয় ঐক্য গড়ে তোলার আহ্বান জানান তিনি।

এদিকে আজ রাজধানীতে আইনমন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, নির্বাচন কমিশন (ইসি) গঠনে আইন করার সময় এসেছে। তবে এ কমিশন গঠনে আইন করার সময় নেই, তাই এ দফায় তা বাস্তবায়ন সম্ভব না।
মন্ত্রী বলেন, এবারও সার্চ কমিটির মাধ্যমেই নির্বাচন কমিশন গঠন করা হবে। পরের বার আইনের মাধ্যমেই হবে।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে, নতুন নির্বাচন কমিশন (ইসি) গঠনে আগামী বছরের জানুয়ারিতে সার্চ কমিটি গঠন করা হবে। রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ওই সার্চ কমিটি গঠন করবেন। চার সদস্যের না, ছয় সদস্যের সার্চ কমিটি হবে তা এখনো নিশ্চিত নয়। আগের সার্চ কমিটির সাচিবিক দায়িত্ব পালন করবে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগ। আগামী ১৪ ফেব্রুয়ারি বর্তমান কে এম নুরুল হুদার নেতৃত্বাধীন কমিশনের মেয়াদ শেষ হচ্ছে। কমিশনের মেয়াদ শেষ হওয়ার এক মাস আগেই এই সার্চ কমিটি গঠিত হয়।

এর আগে গত বৃহস্পতিবার আইনমন্ত্রী জানিয়েছিলেন, সার্চ কমিটির মাধ্যমে নতুন নির্বাচন কমিশন গঠন করা হবে। কোভিডের কারণে এখন নতুন আইন করে ইসি গঠনের সুযোগ নেই। এর আগে গত ৪ অক্টোবর প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাও সার্চ কমিটির মাধ্যমে নতুন ইসি গঠনের কথা জানিয়েছিলেন।

সংবিধানে বলা আছে, কমিশন-সংক্রান্ত একটি আইনের অধীন রাষ্ট্রপতি এ নিয়োগ দেবেন। তবে গত ৫০ বছরেও এই আইন প্রণয়ন সম্ভব হয়নি। ২০১২ সালের ২২ জানুয়ারি প্রয়াত রাষ্ট্রপতি মো. জিল্লুর রহমান প্রথমবারের মতো রাজনৈতিক দলগুলোর সঙ্গে সংলাপ করে চার সদস্যের সার্চ কমিটি করেছিলেন। বর্তমান রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদও ২০১৭ সালের ২৫ জানুয়ারি একই পদ্ধতি অনুসরণ করে ছয় সদস্যের কমিটি করেছিলেন। তিনি প্রথমবার সার্চ কমিটিতে একজন নারী সদস্য অন্তর্ভুক্ত করেন। ইতিমধ্যে সার্চ কমিটি গঠন নিয়ে রাজনৈতিক দলগুলোর মধ্যে মতবিরোধও তৈরি হয়েছে।