বুধবার, ১লা ফেব্রুয়ারি, ২০২৩ ইং, সকাল ৮:০৮
শিরোনাম :
বরিশাল জেলার মেহেন্দিগঞ্জ উপজেলার আন্ধারমানিক গ্রাম সামাজিক শক্তি কমিটির উদ্যোগে কম্বল বিতরণ মুলাদীর মনির হত্যা মামলা সিআইডির তদন্তে এবার ফারুক মৃধা গ্রেফতার এসএ টিভি’র বরিশাল ব্যুরো প্রধান হিসেবে নিয়োগ পেলেন-সাংবাদিক মুজিব ফয়সাল আওয়ামী লীগের ২২তম জাতীয় সম্মেলন এর কেন্দ্রীয় কমিটিতে স্থান পেলেন যারা একদিনে রাজস্ব কমলো ৩ লাখ টাকা: মেট্রোরেলের তারে আটকে গেলো ফানুস বাংলাদেশ ক্রীড়া শিক্ষা প্রতিষ্ঠান (বিকেএসপি) ভর্তি বিজ্ঞপত্তি-২০২৩ ট্রাকচাপায় নরসিংদীতে প্রাণ গেল ৪ জনের মৌসুমে সর্বোচ্চ বৃষ্টিপাতের রেকর্ড বরিশালে, প্লাবিত নিম্নাঞ্চল বরিশাল-৪ আসনের সংসদ সদস্য পঙ্কজ নাথকে দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি রাষ্ট্রীয় সফর শেষে দেশে ফিরেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

আল আমিন বাহিনী গ্রেপ্তারের দাবিতে পুলিশ কমিশনারের কাছে স্মারক লিপি প্রদান ও মানববন্ধন

নিজস্ব প্রতিবেদকঃঃ

বরিশাল নগরীর চাঁদমারিতে নারীসহ অন্তত ১০ জনকে প্রকাশ্যে কুপিয়েছে ১১নং ওয়ার্ডের বাসিন্দা আল আমিন বাহিনীসহ সন্ত্রাসীরা।

এঘটনায় ১৪ই সেপ্টেম্বর সকাল ১১টার সময় নগরীর আমতলার মোড় পুলিশ কমিশনারের কার্যালয়ের সামনে আসামীদের গ্রেপ্তারের দাবিতে চাঁদমারি সর্বস্হরের ব্যাবসায়ীরা বিক্ষোভ মিছিল, ও মানববন্ধন করেন। বিএমপি কমিশনার বরাবর স্মারক লিপি প্রদান করেন বিক্ষোভ ও মানববন্ধনে ১১নং ওয়ার্ড কাউন্সিল মজিবর রহমানসহ তিন মামলার আসামীদের দ্রুত গ্রেপ্তার ও আল আমিন বাহিনীদের বিচারের দাবি জানান। হামলার ঘটনায়, আল-আমিনসহ তার বাহিনীর সদস্যদের বিরুদ্ধে তিনটি মামলা হয়েছে। এর একটি মামলায় কাউন্সিলরের ছোট ভাইকেও অভিযুক্ত করা হয়।

জানাযায়, নগরীর ১১ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর মজিবর রহমানের ছত্রছায়ায় থেকে আল-আমিন এলাকার অন্তত ২৫/৩০ যুবককে নিয়ে একটি বাহিনী গড়ে তোলে। এই বাহিনী পুরো চাঁদমারী ও আশপাশ এলাকায় মাদক বিক্রিসহ বিভিন্ন ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে চাঁদাবাজি এবং জমি বিক্রি, নতুন ভবন মালিকদের জিম্মি করে অর্থ আদায় করে আসছিল। ইতিপূর্বে তাদের এই সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করে স্থানীয় ব্যক্তি বিশেষ লাঞ্ছিত হওয়ায় এখন আর কেউ মুখ খোলার সাহস দেখাচ্ছে না। ফলে আলামিন বাহিনীর অত্যাচার চাঁদামারীতে বেড়েই চলছে। এমনকি আলামিনের সন্ত্রাস নিয়ে স্থানীয়রা কাউন্সিলর মজিবরের দ্বারস্থ হয়েও কোনো সুফল পাননি। বরং কাউন্সিলরের কাছে নালিশ করায় বেশ কয়েকজনকে প্রকাশ্য রাস্তায় বেইজ্জতি হতে হয়েছে। ইজ্জত হারানোর ভয়ে কেউ প্রতিবাদী হয়ে না ওঠায় আলামিন চাঁদামারীতে এক মুর্তিমান আতঙ্কে রুপ নেয় এবং দেদার চালিয়ে যায় মাদক বাণিজ্য-চাঁদাবাজি।

আহত ফরিদা বেগম জানান, স্থানীয় বাসিন্দা মো. কামরুজ্জামান এবং তার ছেলের ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে গিয়ে ১০ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। এই টাকা না পেয়ে গত বৃহস্পতিবার রাতে আলামিন তার অন্তত ১৫ থেকে ২০ সাঙ্গপাঙ্গ নিয়ে ধারালো অস্ত্রসমেত ওই ব্যক্তির ব্যবসাপ্রতিষ্ঠানে হামলা করতে অগ্রসর হলে আমি আমার স্বামী ও সন্তানকে বাঁচাতে প্রতিবাদী করি।। এসময় আলামিনসহ তার বাহিনীর অপরাপর সদস্যরা আমাকেসহ বেশ কয়েকজনকে মারধরসহ কুপিয়ে জখম করে। এই খবর পেয়ে নগর বিশেষ শাখার সহকারি উপ-পরিদর্শক (এএসআই) কামরুল ইসলাম ঘটনাস্থলে গিয়ে তথ্য সংগ্রহ করার চেষ্টা করলে আল আমিন বাহিনী এ পুলিশ কর্মকর্তাকে কুপিয়ে জখম করে। তাই আজ ওই সন্ত্রাসবাহিনীর গ্রেপ্তার ও বিচারের দাবিতে রাস্তায় দাড়িয়েছে শত শত মানুষ।

পুলিশ সূত্রে, গত বৃহস্পতিবার রাতে চাঁদমারীতে সশস্ত্র সন্ত্রাসের ঘটনায় তিনটি মামলা হয়েছে। প্রতিটি মামলায় কাউন্সিলর মজিবরের ক্যাডার আলামিনসহ তার বাহিনীর ২৫ থেকে ৩০ জনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। বিশেষ করে নগর বিশেষ শাখার (সিটিএসবি) কর্মকর্তা কামরুল ইসলামকে কোপানোর ঘটনায় এই আলামিনসহ ১৮ জনের নাম উল্লেখ করে মামলাটি করা হয়। এবং ব্যবসায়ীর স্ত্রী ফরিদা বেগমের মামলাটিতেও আলামিনসহ ১১ জনের নাম উল্লেখ এবং অজ্ঞাতনামা ২০/২৫ জনকে অভিযুক্ত করা হয়েছে। এমনকি সাংবাদিক জলিল আকনের মামলাটিতেও আলামিন এবং কাউন্সিলরের ভাই ইমনসহ ১২ জনের নাম উল্লেখ করে আরও ১৫ জনকে অজ্ঞাত আসামি করেছে। পুলিশ জানিয়েছে- প্রতিটি মামলায় ৩২৬, ৩০৭, ৫০৬, ১৪৩ সহ একাধিক ধারায় অভিযোগ আনা হয়েছে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে। তবে পুলিশ কর্মকর্তাকে কোপানোর ঘটনায় অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে সরকারি কাজে বাধাদানসহ আরও বেশকিছু ধারায় অভিযোগ লিপিবদ্ধ করা হয়।

সবাইকে পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা