শুক্রবার, ৪ঠা ডিসেম্বর, ২০২০ ইং, সকাল ৮:১৫
শিরোনাম :
হঠাৎ করে এলপিএল ছেড়ে দেশে ফিরে গেলেন আফ্রিদি…! যুবলীগ ও হেফাজতে ইসলাম মুখোমুখি, নবীনগরে পরিস্থিতি কিছুটা উত্তপ্ত রোহিঙ্গাদের ভাসানচরে স্থানান্তর করা হবে এ মাসেই ঝালকাঠিতে রহস্যজনক অগ্নীকান্ড, একুশে টিভির জেলা প্রতিনিধি আজমীরের বাসভবনে…! গ্রামকে শহরে রূপান্তরিত করার লক্ষে মুলাদী সদর ইউনিয়নে ওয়ার্ড সভায় প্রধান অতিথি ইউপি চেয়ারম্যান কামরুল আহসান বিশ্বে এখন করোনায় আতংকিত একদিনেই ১২ হাজারের বেশি মানুষের প্রাণহানি..! বাংলাদেশ সাংবাদিক ও সংবাদপত্র ঐক্য পরিষদ, কেন্দ্রীয় কমিটির গঠন ! সভাপতি রেদওয়ান সিকদার রনি ও সাধারণ সম্পাদক আবুবকর সিদ্দীক বরিশাল বিএম কলেজের নতুন অধ্যক্ষ জিয়াউল হক মুলাদীতে প্রাকৃতিক দূর্যোগের কারণে ক্ষতিগ্রস্থ কৃষকদের মাঝে বিনামূল্যে বীজ ও রাসায়নিক সার বিতরন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি উপজেলা চেয়ারম্যান মিঠু খান বঙ্গবন্ধুকে নিয়ে চলচ্চিত্র ‘একজন মহান পিতা’

জেলার বাস ঢাকায় ঢুকবে না, ৪২ রুটে চলবে রাজধানীর পরিবহন

অনলাইন ডেক্সঃ

আন্তজেলা বাসগুলোকে আর ঢাকা মহানগরের মধ্যে ঢুকতে দেওয়া হবে না বলে জানিয়েছেন ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের (ডিএসসিসি) মেয়র শেখ ফজলে নূর তাপস। তিনি বলেন, বাইরের বাসগুলোকে ঢাকা শহরের সীমান্তবর্তী এলাকায় নির্ধারিত আন্তজেলা বাসটার্মিনালে যাত্রী নামিয়ে বাসগুলো তাদের নির্ধারিত গন্তব্যে চলে যাবে। এতে ঢাকা শহরের ওপর গাড়ির চাপ কিছুটা হলেও কমবে।

নগরভবনের বুড়িগঙ্গা হলে আজ মঙ্গলবার দুপুরে গণপরিবহনে শৃঙ্খলা আনয়ন ও যানজট নিরসনে ‘বাস রুট রেশনালাইজেশন’ নামের কমিটির ১৩তম সভায় ডিএসসিসি মেয়র এসব কথা বলেন।

শেখ ফজলে নূর তাপস বলেন, শহরের সীমান্তবর্তী এলাকায় নির্ধারিত আন্তজেলা বাসটার্মিনালে যাত্রী নামিয়ে দেওয়ার পর সেসব টার্মিনাল থেকে সিটি সার্ভিস বা এমআরটি বা সেবা প্রদানকারী বাহনের মাধ্যমে যাত্রীরা নিজ গন্তব্যে যাতায়াত করবেন। এতে ঢাকা শহরের ওপর গাড়ির চাপ কিছুটা হলেও কমবে। আগামী বছরের মধ্যেই ‘বাস রুট রেশনালাইজেশন’ কার্যক্রম দৃশ্যমান পর্যায়ে নিয়ে যাওয়ার আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন তিনি।

রাজধানীতে বর্তমানে চলাচলকারী বাসগুলোর ২৯১টি রুট থেকে কমিয়ে ৪২টি রুটে নিয়ে আসা এবং ২ হাজার ৫০০ বাসমালিকের চলাচলকারী বাসগুলোকে সন্নিবেশ করে ২২টি কোম্পানি করার প্রাথমিক প্রস্তাব বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটির কাছে উপস্থাপন করা হয়েছে বলেও জানান ডিএসসিসি মেয়র। তিনি বলেন, ‘বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটির কাছে একটি প্রাথমিক প্রতিবেদন দেওয়া হয়েছে, সেই রিপোর্ট আমরা পুঙ্খানুপুঙ্খ পর্যালোচনা করেছি। বর্তমানে ঢাকা শহরে ২৯১টি রুটে ২ হাজার ৫০০ বাসমালিকের বাস চলাচল করছে। সেগুলোকে সন্নিবেশ করে ৪২টি রুট ও ২২টি কোম্পানি করার প্রাথমিক প্রস্তাব করা রয়েছে। এই প্রস্তাব বাস্তবায়িত হলে বর্তমান বাসমালিকেরা কোম্পানিগুলোর শেয়ারহোল্ডার হবেন।’

উত্তর সিটি করপোরেশনের মহাখালী ও গাবতলী এবং দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের শুধু সায়েদাবাদ বাসটার্মিনাল আছে জানিয়ে ডিএসসিসি মেয়র আরও বলেন, ‘টার্মিনালগুলোতে বাসগুলোর সংকুলান হয় না, ফলে বাসগুলোকে বিভিন্ন জায়গায় রাস্তায় ওপর রাখা হয়। এ কারণে বড় ধরনের যানজটের সৃষ্টি হয়। এই বিষয়গুলো আমরা আজকের সভায় বিবেচনা করেছি। ডিটিসিএ কর্তৃক নিযুক্ত পরামর্শক প্রতিষ্ঠান আন্তজেলা বাসটার্মিনাল স্থাপনের জন্য যে জায়গা প্রস্তাব করেছে, তার সম্পূর্ণ একটি সমীক্ষা আগামী মার্চ মাসের মধ্যে শেষ হবে। তারপর আমরা পরবর্তী ধাপে আমাদের কার্যক্রম নিয়ে যেতে পারব।’

বৈঠকে উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র মো. আতিকুল ইসলাম অনলাইন প্ল্যাটফর্মের মাধ্যমে সংযুক্ত হয়ে তাঁর মতামত জানান। বৈঠকে কমিটির সদস্যদের মধ্যে ডিএমপি পুলিশ কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম, বিআরটিএর চেয়ারম্যান নূর মোহাম্মদ মজুমদার, বিআরটিসির চেয়ারম্যান মো. এহসানে এলাহী, রাজউক চেয়ারম্যান মো. সাঈদ নূর আলম, বাস রুট রেশনালাইজেশন কমিটির সদস্যসচিব ও ডিটিসিএর নির্বাহী পরিচালক খন্দকার রাকিবুর রহমান, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন মালিক সমিতির মহাসচিব খন্দকার এনায়েত উল্লাহ প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।