মঙ্গলবার, ২১শে সেপ্টেম্বর, ২০২১ ইং, সকাল ৮:১৪

বগুড়ায় প্রতারণার মাধ্যমে প্রবাসীর আড়াই কোটি টাকা আত্মসাৎ: প্রতারক চক্রের সদস্য জনি গ্রেফতার

নিজস্ব প্রতিবেদক::

আমেরিকা প্রবাসীর কাছ থেকে প্রতারণার মাধ্যমে আড়াই কোটি টাকা আত্মসাতের মামলায় রফিকুল হাসান জনি (৪৫) নামের প্রতারক চক্রের সদস্যকে এক গ্রেফতার করেছে সদর থানা পুলিশ। মঙ্গলবার ভোরে সদর থানার এসআই ওসমান গণি সঙ্গীয় ফোর্স এবং মোকামতলা ফাঁড়ি পুলিশের সহযোগিতায় শিবগঞ্জের দেউলী এলাকা থেকে তাকে গ্রেফতার করা হয়। বগুড়া সদর থানা পুলিশ ও মামলা সূত্রে জানা গেছে, আমেরিকা প্রবাসী শামছুল আলম মন্ডলের আত্মীয় শিবগঞ্জ থানার দেউলী সরকারপাড়া এলাকার ছায়ফুল ইসলাম সরকারের ছেলে গ্রেফতারকৃত রফিকুল হাসান জনিসহ একটি প্রতারক চক্র ব্যবসার প্রলোভন
দেখিয়ে বিভিন্ন সময়ে উক্ত আমেরিকা প্রবাসীর কাছ থেকে আড়াই কোটি টাকা হাতিয়ে নেয়। এদিকে প্রতারক চক্রের সদস্য

নওগাঁর জেলার হাট নওগাঁ সান্টু রহমানের স্ত্রী মাফুজা বেগম (৪০) হাইকমিশন কার্যালয়ে চাকুরী করেন বলে পরিচয় দেন। এক পর্যায়ে মাফুজা বেগম বিদেশে লোক পাঠানোর প্রস্তাব দিলে শামছুল আলম মন্ডল ও রফিকুল হাসান জনি গোবিন্দগঞ্জের ৩ ব্যক্তিকে বিদেশে পাঠানোর শর্তে তাদের কাছ থেকে ৬০ লাখ টাকা নিয়ে মাফুজা বেগম এবং তার স্বামী প্রতারক চক্রের আরেক সদস্য সান্টু রহমানের হাতে দেয়। এদিকে বিদেশে যেতে ব্যর্থ হয়ে এবং টাকা ফেরৎ না পেয়ে বগুড়ার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট কোর্টে একটি মামলা দায়ের করা হয়। প্রতারকরা ব্যবসার লভ্যাংশ বন্টনের কথা বলে সামছুল আলম মন্ডলকে দেশে আসতে বলে। তিনি দেশে এলে গত ১৪ মার্চ প্রতারকরা তাকে প্রলোভন দিয়ে হাট নওগাঁয় উক্ত মাফুজা বেগম ও সান্টু রহমানের বাড়িতে নিয়ে গিয়ে ভয় দেখিয়ে উক্ত মাফুজা বেগমের সাথে শামছুল আলম মন্ডলের বিবাহের ভূয়া কাবিন
নামা তৈরি করে। কাবিননামায় ৩৩ লাখ টাকা দেনমোহর উল্লেখ করা হয়। ব্যবসার টাকা আত্মসাৎ করার উদ্দেশ্যেই বিবাহিত নারীর সাথে ওই কাবিননামা তৈরি করা হয়েছে বলে মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে। বগুড়া সদর থানার এস.আই মো. ওসমান গণি বলেন, আমেরিকা প্রবাসীর থেকে প্রতারণার মাধ্যমে আড়াই কোটি টাকা আত্মসাৎ ও এক বিবাহিত নারীর সাথে জোরপূর্বক বিবাহের কাবিননামা তৈরি করার মামলায় রফিকুল হাসান জনিকে গ্রেফতার করা হয়েছে। মঙ্গলবারই তাকে আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ছাড়া মামলায় আরো তথ্য উদঘাটনে নিবির জিঞ্জাবাদের জন্য আদালতে ৭ দিনের রিমান্ডের আবেদন করা হবে পুলিশের পক্ষ থেকে বলে জানায় এই কর্মকর্তা।