রবিবার, ১৯শে মে, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ভোর ৫:১৭
শিরোনাম :
হেলমেট পরিধানে অনীহাই ঝুঁকিতে বরিশালের ৯০ ভাগ সংবাদকর্মীর প্রাণ কাউখালী উপজেলা নির্বাচনে আনারস প্রার্থীর কর্মীদের মারধর ও পুলিশ হয়রানির অভিযোগ ল’ এসোসিয়েশন অফ বাংলাদেশ (ল্যাব) এর বরিশাল জেলার কমিটি গঠন বন বিভাগের জমিতে গড়ে ওঠা অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ বর্তমানে চাকরিতে প্রবেশের বয়স ৩০ থেকে বাড়োনোর প্রস্তাব নেছারাবাদ সাগরকান্দার কুখ্যাত ডাকাত রুবেল খুলনায় আটক উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে কর্মরত ডাক্তারের অবহেলায় নবজাতক মৃত্যুর অভিযোগ জেলা তথ্য অফিসের আয়োজনে নারী সমাবেশ ও মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত আসন্ন উপজেলা পরিষদ নির্বাচন উপলক্ষ‍্যে নেছারাবাদ উপজেলায় মতবিনিময় সভা বরিশালে যথাযোগ্য মর্যাদায় শহিদ দিবসের কর্মসূচি

মুলাদির আলোচিত মনির হত্যা মামলার আসামি আব্বাসের খুঁটির জোর কোথায়?

অনলাইন ডেক্স::

মামলার তদন্তকারী উপর হামলা করে পালালো আসামি আব্বাস হাওলাদার এখনো গ্রেফতার হয়নি!

গত ৩১ শে জানুয়ারি ২০২৩ বরিশাল জেলার মুলাদী আলোচিত মনির হত্যা মামলা তদন্তকালে মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা রুহুল আমিন আব্বাস হাওলাদারকে গ্রেফতার করার সময় আব্বাস গ্রুপের সাথে হাতাহাতি হয় প্রশাসনের। এই সুযোগ পালিয়ে যায় আব্বাস হাওলাদার এখনও গ্রেপ্তার হয়নি পলাতক আসামি আব্বাস প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছেন এলাকায়। জনগণ জানতে আব্বাসের খুঁটি খুঁটির জোর কোথায়? কে আছেন আব্বাসের পিছনে। এত ক্ষমতার অধিকারী এই কে আব্বাস! একাধিক মামলার আসামি থাকা সত্ত্বেও প্রশাসনের উপর হামলা করে পালিয়ে যাওয়া আব্বাস এখনো কেন গ্রেফতার হয়নি বলে জানতে চাই মুলাদের গ্রামবাসী স্থানীয়রা মনে হয় প্রশাসনের চেয়ে প্রভাবশালী এই আব্বাস মনির হত্যা মামলায় আলোচিত ঘটনা সেই ঘটনার একজন অধিনায়ক আব্বাস হাওলাদার নানার অপকর্ম করে ঘুরে বেড়াচ্ছেন প্রকাশ্যে এলাকায় প্রশাসনের ধরাছোঁয়ার বাহিরে। প্রশাসনের উপর হামলা করেন আব্বাস-সহ তার বাহিনী একটি সন্ত্রাস দল। প্রশাসনের কর্মকর্তারা এখনো গ্রেফতার করতে পারেননি সন্ত্রাস আব্বাস”কে। স্থানীয় সূত্রে জানা যায় গত ৩১ শে জানুয়ারি ২০২৩ ইং মুলাদীতে চাঞ্চল্যকর মনির হত্যা মামলার আসামিকে গ্রেফতার করতে গিয়ে ধস্তাধস্তি-হাতাহাতির শিকার হয়েছেন পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) দুই সদস্য। সোমবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে মুলাদী উপজেলার মীরগঞ্জ ফেরিঘাট এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।
আহতরা হলেন- সিআইডির উপ-পরিদর্শক (এসআই) রুহুল আমিন ও কনস্টেবল আব্দুল হাকিম।
এসআই রুহুল আমিন জানান, মুলাদীর আলোচিত মনির হোসেন হাওলাদার হত্যা মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা তিনি। সেই হিসেবে সন্দেহভাজন আসামি আব্বাস হাওলাদারকে গ্রেফতারের জন্য অবস্থা পর্যবেক্ষণ করতে মীরগঞ্জ ফেরিঘাটের পল্টুনে অবস্থান নেন তিনি ও আব্দুল হাকিমসহ সিআইডির একটি টিম। এ সময় আসামির স্বজনরা সিআইডি পুলিশের জ্যাকেট পরিহিত অবস্থায় দেখে তাদের ঘিরে ধরেন এবং ধস্তাধস্তি ও হাতাহাতি করেন। এতে তিনি ও কনস্টেবল আব্দুল হাকিম সামান্য আহত হয়েছেন।
এ ঘটনায় থানায় কোনো অভিযোগ দেওয়া হয়নি জানিয়ে এসআই রুহুল আমিন বলেন, ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেবেন।
এদিকে প্রত্যক্ষদর্শী জানিয়েছেন, মুলাদী উপজেলার চর কমিশনার এলাকার রব হাওলাদারের ছেলে আব্বাস হাওলাদারকে গ্রেফতারে অভিযান চালায় সিআইডি। এসময় আব্বাসের হয়ে তার ছয়/সাতজন স্বজন ও সহযোগী এসে সিআইডি টিমকে বাঁধা দেন। এসময় তাদের মধ্যে হাতাহাতি ও ধস্তাধস্তি হয়। এ সুযোগে আব্বাস ঘটনাস্থল থেকে পালিয়ে যান। ধস্তাধস্তিতে সিআইডির দুই সদস্য আহত হন। অপদিকে এই ঘটনায় আব্বাসের বিরুদ্ধে প্রশাসন এখনো কোনো ব্যবস্থা নেয়নি এবং আব্বাস এলাকায় প্রকাশ্যে ঘুরে বেড়াচ্ছে এবং বিভিন্ন অপকর্ম সাথে সামিল হচ্ছে এ সন্ত্রাস মাদক ব্যবসায়ী ও পালাতক আসামী আব্বাস হাওলাদার দেখার মত কেউ নেই। স্থানীয় লোকজন বলেন প্রশাসনের উপর হামলা ও মনির হত্যা মামলার সন্দেহজনক আসামী আব্বাসকে ধরে সত্য ঘটনা উন্মোচন করে অপরাধীদের আইনের আওতায় আনিয়া বিচারের দাবি জানিয়েছেন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা কাছে এলাকাবাসী।

সবাইকে পবিত্র ঈদুল ফিতরের শুভেচ্ছা