সোমবার, ১২ই এপ্রিল, ২০২১ ইং, দুপুর ১:৩৫

অভিনয় থেকে পরিচালকের আসনে শ্রীলেখা মিত্র

অনলাইন ডেস্ক::

ইতালির রাজনীতিতে আসতে পারেন নতুন মুখ। নতুন প্রধানমন্ত্রী! বুধবার (৩ ফেব্রুয়ারি) প্রেসিডেন্ট সের্জিও মাত্তারেল্লোর সঙ্গে আলোচনায় বসেছেন অর্থনীতিবিদ ও সেন্টাল ব্যাংক অব ইউরোপের প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট ‘মারিও দ্রাঘি’।

তিনি ২০১১ সাল থেকে ২০১৯ সাল পর্যন্ত ইউরোপের সেন্টাল ব্যাংকের প্রেসিডেন্ট ও ২০০৫ সাল থেকে ২০১১ সাল পর্যন্ত ইতালির কেন্দ্রীয় ব্যাংকের গভর্নর ছিলেন। প্রেসিডেন্ট সের্জিও মাত্তারেল্লো তাকে নতুন শক্তিশালী সরকার গঠনের জন্য সময় দিলে, তিনি সেই সুযোগ গ্রহণ করে সরকার গঠনের জন্য প্রয়োজনীয় সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিয়ে প্রধানমন্ত্রী হবেন। তবে প্রেসিডেন্ট দেশের স্বার্থে একটি জাতীয় শক্তিশালী সরকার গঠনের জন্য প্রয়োজনীয় সবকিছু করতে চান বলে জানিয়েছেন।

করোনাকালীন এই অর্থনৈতিক দূরাবস্থার মধ্যে আরেকটি জাতীয় নির্বাচন তিনি চান না বলে জানিয়েছেন। তাই জাতীয় স্বার্থে তিনি সর্বাত্মক চেষ্টা চালিয়ে যাবেন বলে জানিয়েছেন। মারিও দ্রাঘি ইতালির ও ইউরোপের অর্থনৈতিক পরিমণ্ডলে সুপরিচিত মুখ। তিনি টানা ৮ বছর সেন্টাল ব্যাংক অব ইউরোপের কর্তাব্যক্তি ছিলেন। ২০১২ সালের দিকে ইউরো জোনের ক্রাইসিসকে তিনি যেভাবে মোকাবিলা করে ছিলেন তা অনেকের নিকট প্রশংসার দাবি রাখে। তবে তার নেওয়া অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডের অনেক সমালোচকও রয়েছে ইউরোপ জুড়ে। এবার দেখার বিষয় তিনি কিভাবে সামাল দিবেন ইতালির ভঙ্গুর পার্লামেন্টকে।

একপাশে এখনো তার প্রতিদ্বন্দ্বী সদ্য পদত্যাগী জনপ্রিয় প্রধানমন্ত্রী জুসেপ্পে কন্তে। সাধারণ মানুষের নিকট তিনিই এই সময়ের সবচেয়ে বেশি গ্রহণযোগ্য প্রধানমন্ত্রী। সেইসঙ্গে বিরোধী দলীয় নেতা মাতায়ো সালভেনী এ যাবৎ কালের জনপ্রিয় বিরোধী রাজনৈতিক নেতা। এমন একটা চাপের মধ্যে থেকে সম্ভাবনাময় শক্তিশালী সরকার গঠন করা ও সকলের নিরঙ্কুশ স্বমর্থন লাভ করতে পারা হবে মারিও দ্রাঘির জন্য বড় চ্যালেঞ্জ।